নতুন বিজনেস আইডিয়ার খোঁজে

0
169

প্রথমেই বলে রাখি, নতুন বিজনেস আইডিয়া মানেই কিন্তু এমন কিছু নয় – যা আগে ছিল না। পুরাতন আইডিয়াকে নিজের মত করে সাজিয়ে ব্যবসা করতে নামাও নতুন বিজনেস আইডিয়ার মধ্যেই পড়ে। দোকান থেকে শুরু করে ওয়েবসাইট বা শিল্প কারখানা পর্যন্ত সব বিজনেস আইডিয়াই একসময়ে নতুন থাকে। উদ্যোক্তারা সেটিকে ধীরে ধীরে পরিনত ও লাভজনক ব্যবসায়ে পরিনত করেন।

আপনার ইতিমধ্যে একটি চমৎকার বিজনেস আইডিয়া আছে, তাহলে আপনাকে জানাই অভিনন্দন । যদি না থাকে, তবে কয়েকটি পয়েন্টার রয়েছে আপনার জন্যঃ

১। আপনার দক্ষতা প্রয়োগ করুন

যেই বিষয়ে আপনি সবচেয়ে বেশী দক্ষ সেই বিষয়ে হয়তো ইতিপূর্বে অনেকেই কাজ করা শুরু করেছে। খুঁজে বের করুন, তাদের কাজকে আরও কিভাবে কম খরচে, ভাল ও দ্রুততর কিছু তৈরি করতে পারেন সে সম্পর্কে ফোকাস দিন।

২। বর্তমান ও পরবর্তী প্রযুক্তি

একটু চোখ কান খোলা রেখে দেখুনতো, বর্তমানে প্রচলিত কোন প্রযুক্তি শীঘ্রই আসছে নতুন রুপে। নতুন প্রযুক্তির প্রভাবে কি কি পরিবর্তন আসতে পারে বর্তমান ব্যবসায়। বর্তমান ব্যবসায়কে নতুন প্রযুক্তি নির্ভর নতুন রুপে শুরু করা সম্ভব কিভাবে সেদিক ফোকাস দিন।

৩। বিদেশি ব্যবসায় নজর রাখুন

দেশের বাইরে নতুন কোন সফল ব্যবসা চালু হলে সেটি দ্রুত নিজেই দেশে চালু করার চেষ্টা করুন। ‘পাঠাও’ এর কথাই ধরা যাক। উন্নত দেশগুলোতে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে যানবাহন ভাড়া করা অনেক আগে থেকেই প্রচলিত। ‘উবার’ অনেক আগে থেকেই এক্ষেত্রে বেশ প্রসিদ্ধ এক নাম। উবারের সেবাটিই পাঠাও চালু করায় আজ তারা অনেক বড় এক প্রতিষ্ঠান।

৪। তৃতীয় বিশ্বকে দেখুন একটু ভিন্ন চোখে

বিশ্বের বড় বড় কোম্পানিই স্বল্প আয়ের দেশগুলো নিয়ে মাথা ঘামায় না। আর এই সুযোগকেই কাজে লাগাতে পারেন আপনি।ব্যাকপ্যাকের কথাই ধরা যাক। বিশ্বখ্যাত Amazon.com এর বেশিরভাগ পণ্যই বাংলাদেশে ডেলিভারি হয় না। ব্যাকপ্যাকের মাধ্যমে যে কেউ তাদের পছন্দের পণ্য দেশে আনাতে পারেন। আপনার কাজ হবে, এমন একটি সেবা খুঁজে বের করা যা দেশে নেই এবং কোনোভাবে সেই সেবাটা দেশে আনা সম্ভব কি না। একবার আনতে পারলে সেই সেবা ভোগ করার মতো লোকের অভাব হবে না।

৫। আসাধারন আইডিয়া কিন্তু ব্যর্থ

‘৯০ এর দশকে pseudo com অনলাইনে ভিডিও পাবলিশ করা শুরু করে। কিন্তু তাদের এই আইডিয়া ব্যর্থ হয় তখনকার ইন্টারনেটের গতির কারণে। এরকম শত শত উদাহরণ পাওয়া যাবে autopsy.io এবং CB Insights নামক ব্লগে। এই সাইটগুলোতে আলোচনা করা হয়, ঠিক কী কারণে ব্যবসাগুলো সফল হতে পারেনি। আপনার কাজ হলো এরকম উদাহরণগুলো দেখা আর বের করা যে, ১৫ বছর আগের ব্যর্থ হওয়া আইডিয়াটি আজকের প্রযুক্তি দিয়ে বাস্তবায়ন করা সম্ভব কি না ।

এছাড়াও, বাইরে যান এবং লোকদের সাথে দেখা করুন এবং তাদের কাছে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করুন, অন্যান্য উদ্যোক্তাদের পরামর্শ নিন।

তো আর দেরি কেন? বের করে ফেলুন যেকোনো একটি বিজনেস আইডিয়া! হয়ত এই আইডিয়াই হতে পারে আপনার শিল্পপতি হবার গল্পের প্রথম ধাপ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here